অনলাইনে শেষ দিনেই ৩১১ কোটি টাকার পশু বিক্রি।

কোভিড-১৯ এর সংক্রমণ প্রতিরোধে ঈদুল আজহার কোরবানির পশু অনলাইনে বেচা-কেনার জোর দেয় সরকার। প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের তত্ত্বাবধায়নে সরকারের এমন উদ্যোগে সারাদেশে মোট এক হাজার ৭৬৮টি অনলাইন বাজার (ডিজিটাল গরুর হাট) এবং সরকারের ৬০২টি প্লাটফর্ম কোরবানির পশু বেচা-কেনায় অংশ নেয়।

১৯ দিন ধরে চলা ডিজিটাল গরুর হাটে মঙ্গলবার শেষ দিন ৩১১ কোটি ১ লাখ ৭৯ হাজার ৪২৪ টাকার পশু বিক্রি হয়েছে। আর অনলাইনে মোট  ২ হাজার ৭৩৫ কোটি ১১ লাখ ১৫ হাজার ৬৭৮ টাকায় ৩ লাখ ৮৭ হাজার ৫৭৯টি পশু বেচা-কেনা হয়েছে। অনলাইন বাজারে আপলোড করা হয় মোট ১৮ লাখ ১২ হাজার ২০২টি পশুর তথ্য। শেষ দিন আপলোড করা হয় ২৬ হাজার ৬৮১টি কোরবানির পশুর তথ্য।

সোমবার (১৯ জুলাই) দুপুর থেকে মঙ্গলবার (২০ জুলাই) দুপুর পর্যন্ত সংগৃহীত তথ্যের ভিত্তিতে এসব তথ্য জানিয়েছে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর। প্রাণিসম্পদক অধিদপ্তরের পরিচালক (সম্প্রসারণ) ডা. দেবাশীষ দাশ স্বাক্ষরিত এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়।
২ জুলাই থেকে অনলাইনে কোরবানির পশুর তথ্য আপলোড ও বিক্রির তথ্য জানিয়ে আসছিল অধিদপ্তরটি। আজকের পর থেকে এ তথ্য তারা আর প্রকাশ করবে না।
অধিদপ্তরটি বলছে, ২ থেকে ২০ জুলাই পর্যন্ত ১৯ দিনে অনলাইনে ২ লাখ ৯৬ হাজার ৭১০টি গরু/মহিষ এবং ৯০ হাজার ৮৬৯টি ছাগল/ভেড়া বিক্রি হয়েছে। এসব পশু বিক্রি হয়েছে মোট ২ হাজার ৭৩৫ কোটি ১১ লাখ ১৫ হাজার ৬৭৮ টাকায়।
Print Friendly, PDF & Email

Translate »