অর্থনীতিএক্সক্লুসিভশীর্ষ-২

লকডাউনে শেয়ারবাজারে লেনদেন হবে আড়াই ঘন্টা

করোনা সংক্রমণ রোধে কঠোর লকডাউনে ব্যাংক খোলা চালুর পাশাপাশি খোলা থাকবে পুঁজিবাজারও। এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জে কমিশন (বিএসইসি)।

আজ মঙ্গলবার বিএসইসির কমিশনার অধ্যাপক শেখ সামসুদ্দিন আহমেদ অনলাইন গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, পুঁজিবাজার যে কোনো সময় লেনদেনের জন্য প্রস্তুত আছে। ব্যাংকের মাধ্যমে আমাদের বাজারে লেনদেন হয়। তাই আমরাও বাজার খোলার রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বুধবার পুঁজিবাজারে লেনদেন শুরু হবে সকাল ১০টায়, শেষ হবে বেলা সাড়ে ১২টায়।

তিনি আরো জানান, স্টক এক্সচেঞ্জ এবং ব্রোকার হাউজগুলো যাতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে লেনদেন করে সে জন্য নির্দেশনাও দেওয়া হয়েছে।

এর আগে, আজ মঙ্গলবার বাংলাদেশ ব্যাংকের ডিপার্টমেন্ট অব অফ-সাইট সুপারভিশন ‘করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধকল্পে সরকার কর্তৃক আরোপিত বিধি-নিষেধের মধ্যে ব্যাংকিং কার্যক্রম প্রসঙ্গে সার্কুলার জারি করে জানায়, বিধি-নিষেধের সাত দিন সীমিত পরিসরে খোলা থাকবে ব্যাংক। সাপ্তাহিক ছুটির দিন ছাড়া প্রতিদিন সকাল সাড়ে ৯টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত ব্যাংকের লেনদেন হবে। লেনদেন-পরবর্তী আনুষঙ্গিক কার্যক্রম শেষ করার জন্য ব্যাংক খোলা থাকবে বিকেল ৩টা পর্যন্ত।

আজ দুপুরে মাঠ প্রশাসন অধিশাখা থেকে বিশেষ প্রয়োজনে ব্যাংক চালু রাখতে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরকে চিঠি দেয় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। উপ সচিব রেজাউল ইসলাম স্বাক্ষরিত ‘বিশেষ প্রয়োজনে ব্যাংকিং সেবা প্রদান’ সংক্রান্ত এ চিঠিতে বলা হয়, ১৪ থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত ব্যাংকিং সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা জারির জন্য আদেশক্রমে অনুরোধ জানানো হয়।

গতকাল সোমবার আট দিনের কঠোর লকডাউন ঘোষণা করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। এই সময়ে পালনের জন্য ১৩টি নির্দেশনা দেয়া হয়েছে প্রজ্ঞাপনে। এতে সকল সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি অফিস/আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে ও সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী নিজ নিজ কর্মস্থলে অবস্থান করবেন। তবে শিল্প-কারখানা খোলা থাকছে।

সোমবার বিকেলেই সার্কুলার জারি বাংলাদেশ ব্যাংক নির্দেশনা দিয়েছিলো, মহামারি করোনা ভাইরাস সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে ১৪ এপ্রিল থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত সরকারের দেয়া কঠোর বিধিনিষেধে সব ব্যাংক বন্ধ থাকবে। বিধিনিষেধ চলাকালীন ব্যাংক শাখার পাশাপাশি আর্থিক সেবা দেয়া ব্যাংকের সব উপশাখা, বুথ ব্যাংকিং, এজেন্ট ব্যাংকিং সেবাও বন্ধ থাকবে। তবে খোলা থাকবে এটিএম, ইন্টারনেট ব্যাংকিংসহ অনলাইনের সব সেবা।

নাগরিক বার্তা/ডেস্ক/তারেক

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button