মৃত ব্যক্তিকে আইসিউতে রেখে টাকা হাতানোর অভিযোগ ল্যাবএইড হাসপালের বিরুদ্ধে - Pallibarta.com

শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২

মৃত ব্যক্তিকে আইসিউতে রেখে টাকা হাতানোর অভিযোগ ল্যাবএইড হাসপালের বিরুদ্ধে

মৃত ব্যক্তিকে আইসিউতে রেখে টাকা হাতানোর অভিযোগ ল্যাবএইড হাসপালের বিরুদ্ধে মৃত ব্যক্তিকে আইসিইউতে রেখে টাকা হাতানোর অভিযোগ
রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে চিকিৎসায় অবহেলায় এক রোগী মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্বজনদের দাবি, অতিরিক্ত এনেসথেশিয়া দেওয়ায় এই ঘটনা ঘটেছে।

মৃত ব্যক্তিকে আইসিউতে রেখে টাকা হাতানোর অভিযোগ ল্যাবএইড হাসপালের বিরুদ্ধে রাজধানীর ধানমণ্ডি এলাকার ল্যাবএইড হাসপাতালে মৃত এক রোগীর স্বজনরা বিক্ষোভ করেছেন। গত ১০ নভেম্বর দৌলত ব্যাপারী নামে এক ব্যবসায়ীকে কিডনিতে পাথরজনিত কারণে ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে বসে মেডিকেল বোর্ড। ১১ নভেম্বর করা হয় অস্ত্রোপচার। এরপর রোগীর অবস্থা আরও খারাপ হলে নেওয়া হয় আইসিউতে।

স্বজনরা বলছেন, বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) সকালে রোগীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য থাইল্যান্ড নিয়ে যেতে চাইলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

স্বজনদের দাবি, রোগী আগে মারা গেলেও শুধু অতিরিক্ত বিল চার্জের জন্য এতদিন ধরে আইসিইউতে রাখা হয়েছিল। চিকিৎসায় অবহেলার কারণেই রোগীর মৃত্যু হয়েছে বলেও দাবি করেন তারা।

স্বজনরা বলেন, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে বলেছি আমাদের ভাইকে উন্নত চিকিৎসার জন্য থাইল্যান্ড নিয়ে যাবো। তার আধাঘণ্টা পর তারা ঘোষণা দিয়ে বলেছে, আপনাদের ভাই মারা গেছেন। অপারেশনের আধা ঘণ্টা পরেই তিনি সেন্সলেস হয়ে পড়েন। জিহ্বায় কামড় দিয়েছে, নাক-মুখ দিয়ে রক্ত বের হয়েছে। তারা বলছেন চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

ঘটনার প্রতিবাদ করলে রোগীর এক স্বজনকে টয়লেটে আটকে রেখে মারধর করার অভিযোগ ওঠে হাসপাতালের নিরাপত্তাকর্মীদের বিরুদ্ধে।

স্বজনরা বলছেন, তাকে ধরে নিয়ে অস্ত্র ঠেকিয়ে বলেছে যে ’এ বিষয়ে কিছু বলবি না। না হয় লাশও পাবি না। চুপচাপ এখান থেকে চলে যাবি’।

তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ স্বজনদের মারধরের ঘটনাটি অস্বীকার করেছে। ল্যাবএইড হাসপাতালের জনসংযোগ কর্মকর্তা মেহের-ই-খুদা দ্বীপ বলেন, তাকে মেরেছে কিনা আমরা তো দেখিনি। যদি এ ধরনের ঘটনা ঘটে থাকে, তারা যদি অভিযোগ দিয়ে থাকে, তবে আমরা সিসি ক্যামেরা চেক করবো। প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ গ্রহণ করবো। যদি সত্যিই কেউ দোষী হয়ে থাকে, তবে অবশ্যই তার শাস্তি হবে।

এ ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন স্বজনরা।

আরো পড়ুন ...

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১