Pallibarta.com | মিশরের প্রাচীন ঐতিহ্য, কামান নিক্ষেপের শব্দে ইফতার শুরু - Pallibarta.com

সোমবার, ১৬ মে ২০২২

মিশরের প্রাচীন ঐতিহ্য, কামান নিক্ষেপের শব্দে ইফতার শুরু

মিশরের প্রাচীন ঐতিহ্য, কামান নিক্ষেপের শব্দে ইফতার শুরু

কামান নিক্ষেপের মাধ্যমে ইফতারের সময় জানিয়ে দেওয়া মিশরীয়দের একটি প্রাচীন ঐতিহ্য। কামানের ধ্বনি দিয়ে মানুষকে সতর্ক করার কাজটি অত্যন্ত সুচারুভাবে পালন করা হয়। প্রথমে দেশটিতে এর প্রচলন শুরু হলেও পরবর্তিতে দামেস্ক, বাগদাদ, জেরুজালেমসহ অনেক আরব দেশে কামানের গোলা চালানোর মাধ্যমে ইফতার করা হয়।

এছাড়াও ঘড়ি, রেডিও, টিভি কিংবা মুঠোফোন আবিষ্কারের আগে ইফতারের সময় হলে শহরবাসীকে কামানের বিস্ফোরণের শব্দে ইফতার করার জন্য অবহিত করা হতো। তবে হ্যাঁ, প্রাচীন এই পদ্ধতির বিষয়ে কায়রো নগরীকেন্দ্রিক তিনটি গল্প রয়েছে।

ঐতিহাসিকদের মতে, প্রথাটি দশম শতাব্দীতে মিশরে চালু হয়, যখন ফাতিমি খলিফাদের একজন কায়রোর মুকাতাম পার্বত্য অঞ্চলে একটি কামান স্থাপনের নির্দেশ দেন। যেটার শব্দে নগরীর সমস্ত মুসলমান তাদের রোজা ভাঙার সংকেত শুনতে পান।

স্থানীয় অনেকেই মনে করেন, মিশরে কামান চালানোর প্রথা শুরু হয়েছিল ১৮০৫ খ্রিস্টাব্দে, মোহাম্মদ আলী পাশার শাসনামলে। তিনি একটি কামান পরীক্ষা করতে চেয়েছিলেন। সেটি আবার রমজানের প্রথম দিনের সূর্যাস্তের সঙ্গে মিলে যায়। তারপর থেকেই প্রতি রমজানের ইফতার শুরু করার জন্য কামানটি থেকে গুলি চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেন মোহাম্মদ আলী পাশা।

সূত্রমতে, ১৪৬০ খ্রিস্টাব্দে মামলুক সুলতান খোশকাদ্দামকে একজন জার্মান কামানটি উপহার হিসেবে দিয়েছিলেন। তিনি সেটি পরীক্ষা করার জন্য তার সৈন্যদের গুলি চালানোর নির্দেশ দেন। কাকতালীয়ভাবে তখন ছিল রমজান মাস। সময়টা ছিল সূর্যাস্তের মুহূর্ত। এই কামানের গুলির শব্দকে কায়রোর জনগণ ইফতারের সংকেত মনে করেছিল। এই পদ্ধতি মিশরের জনগণের কাছে এতটাই পছন্দ হয়েছিল যে তারা সুলতানকে অভিবাদন জানাতে প্রাসাদে জমা হয়েছিল।

রাজকন্যা হাজ্জা ফাতিমার পিতার প্রতি জনগণের এমন ভালোবাসা দেখে সুলতানকে প্রতিদিন ইফতারির জন্য কামান চালানোর অনুরোধ জানান। সুলতান এতে সম্মত হন, এভাবেই মিদফা আল ইফতারের প্রচলন শুরু হয়। স্থানীয়ভাবে এটি হাজ্জা ফাতিমার নামেও পরিচিত।

পরবর্তিতে ১৯৩৪ খ্রিস্টাব্দ থেকে রেডিও ও ১৯৬০ খ্রিস্টাব্দ থেকে মিশরের স্থানীয় টেলিভিশনে রমজান মাসে ইফতার শুরু করার জন্য কামানটি থেকে গুলি নিক্ষেপ সরাসরি সম্প্রচার করা হয়ে থাকে।

আরো পড়ুন ...

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১