বিরামপুরে এতিমখানার চেক বিতরণে ঘুষ বাণিজ্যের অভিযোগ - Pallibarta.com

শুক্রবার, ২ জুন ২০২৩

বিরামপুরে এতিমখানার চেক বিতরণে ঘুষ বাণিজ্যের অভিযোগ

বিরামপুরে এতিমখানার চেক বিতরণে ঘুষ বাণিজ্যের অভিযোগ

মিজানুর রহমান মিজান, বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ
দিনাজপুর বিরামপুর উপজেলায় সরকারি নিবন্ধনকৃত এতিমখানাগুলোতে এতিমদের ক্যাপিটেশন গ্রান্ডের টাকার চেক বিতরণের জন্য উপজেলা সমাজসেবা অফিসের অফিস সহকারী জামাল উদ্দিন ঘুষ বাণিজ্য করছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

বিরামপুর উপজেলার রতনপুর এতিমখানা মাদ্রাসার শিক্ষক মাজহারুল ইসলাম উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত অভিযোগে জানান, ঐ এতিমখানার এতিমদের জন্য ২০২২ইং সালে ৫ লাখ টাকার সরকারী বরাদ্দ অনুমোদন হয়। এই টাকার চেক উপজেলা সমাজসেবা অফিস থেকে এতিমখানায় হস্তান্তরের কথা থাকলেও উপজলো সমাজসেবা অফিসের অফিস সহকারী জামাল উদ্দিন চেক বিতরণের জন্য ২৫ হাজার টাকা ঘুষ দাবী করেন। অভিযোগকারী ঘুষ দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে তাঁকে বেশ কয়েকদিন ঘুরানো হয়। অবশেষে অফিস সহকারী জামাল উদ্দিন ২০ হাজার টাকা ঘুষ নিয়ে ঐ এতিমখানার ৫ লাখ টাকার চেক হস্তান্তর করেছেন।

সমাজসেবা দপ্তরের নিবন্ধনকৃত আরো দু’টি এতিমখানা সূত্রে জানা গেছে, জামাল উদ্দিন উপজলোর ১৭টি এতিমখানার প্রায় সবগুলো থেকেই চেক বিতরণ ও কমিটি অনুমোদনের নামে ঘুষ বাণিজ্য করেছেন।

উপজেলা সমাজসেবা অফিসে গিয়ে স্থানীয় সাংবাদিকেরা অভিযুক্ত জামাল উদ্দিনকে এ ব্যাপারে জিজ্ঞেস করলে তিনি কোন জবাব না দিয়ে অফিস থেকে বেরিয়ে যান।

উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা রাজুল ইসলাম জানান, জামাল উদ্দিনের ঘুষ-দুর্নীতির কথা জানতে পেরে তিনি ইতিপূর্বে জামাল উদ্দিনকে সতর্ক করেছেন। এতেও কোন কাজ না হওয়ায় জামাল উদ্দিনকে বদলীর জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন করেছেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) পরিমল কুমার সরকার জানান, তিনি এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছেন এবং ঘটনাটি তদন্ত করে ব‍্যবস্থা নেওয়ার জন্য দিনাজপুর জেলা সমাজসেবা অফিসের উপ- পরিচালকের নিকট অভিযোগটি পাঠিয়ে দিয়েছেন।

দিনাজপুর জেলা সমাজসেবা অফিসের উপ-পরচিালক আবু বক্কর সিদ্দিক জানান, তিনি অভিযোগটি পেয়েছেন এবং এ বিষয়ে তদন্ত করার জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব‍্যবস্থা নেওয়া হবে।

তদন্তের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দিনাজপুর জেলা সমাজসেবা অফিসের সহকারী পরিচালক (কার্যক্রম) মুনির হোসেন জানান, তিনি এক সপ্তাহের মধ্যে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করবেন।

এতিমখানায় সরকারি বরাদ্দের টাকার চেক বিতরণে ঘুষ বাণিজ্যের বিষয়টি নিয়ে এলাকার জনসাধারণের মাঝে সমালোচনা শুরু হয়েছে এবং উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তার অগোচরে তাঁর অফিসের অফিস সহকারী কিভাবে ঘুষ বাণিজ্যে লিপ্ত হলেন এ বিষয়েও সচেতন মহল প্রশ্ন তুলেছেন।

আরো পড়ুন ...

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০