Pallibarta.com | পিএসজিতে যাচ্ছেন মেসি? অপেক্ষা ১০ আগস্টের!.........

সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১

পিএসজিতে যাচ্ছেন মেসি? অপেক্ষা ১০ আগস্টের!

আগ্রহী ক্লাবের তালিকায় পিএসজি থেকে শুরু করে ম্যানচেস্টার সিটি, ইন্টার মিলান, জুভেন্টাস, ইন্টার মায়ামি, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, লিভারপুল, চেলসি—মোটামুটি সব বড় ক্লাবেরই নাম ছিল। আর্থিক সামর্থ্য, বাড়তি বেতন দিতে অনাগ্রহ, খেলোয়াড়দের অভ্যন্তরীণ রসায়ন নষ্ট হওয়ার ভয়, আর্থিক সঙ্গতির নীতিতে (এফএফপি) ধরা পড়ার ভয়—একাধিক কারণে যে তালিকায় কমতে কমতে ক্লাবের সংখ্যা দাঁড়ায় দুইয়ে, ম্যানচেস্টার সিটি ও পিএসজি। গতকাল পেপ গার্দিওলার বক্তব্যের মাধ্যমে পরিষ্কার হয়ে যায়, জ্যাক গ্রিলিশকে আগেই দলে নিয়ে নেওয়ায় সিটিও আর লিওনেল মেসির দিকে হাত বাড়াতে পারছে না।

রইল বাকি এক। পিএসজি। মেসি সেই পিএসজিতেই যাচ্ছেন। অন্তত ফ্রান্স, স্পেন ও আর্জেন্টিনার নির্ভরযোগ্য ক্রীড়াসাংবাদিক ও গণমাধ্যমের পাকা খবর এটাই।

বার্সেলোনায় আর মেসি খেলবেন না, এই খবর আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশিত হওয়ার পর মূলত পিএসজিই মেসিকে দলে নেওয়ার জন্য উঠেপড়ে লাগে। সে প্রচেষ্টায় তাঁরা শতভাগ সফল হয়েছে, এমনটাই খবর নির্ভরযোগ্য গণমাধ্যমগুলোর। ফরাসি সংবাদমাধ্যম লে’ কিপ জানিয়েছে, পিএসজিতে যাওয়ার ব্যাপারে এর মধ্যেই বন্ধু নেইমার ও আনহেল দি মারিয়ার সঙ্গে নিয়মিত কথাবার্তা চালিয়ে যাচ্ছেন মেসি। কথা বলেছেন পিএসজির আর্জেন্টাইন কোচ মরিসিও পচেত্তিনোর সঙ্গে। বুঝে নিচ্ছেন নিজের সম্ভাব্য ভবিষ্যৎ ক্লাবের ভেতর-বাইরের অবস্থা। নেইমার নিজে খুব করে চাইছেন প্রিয় বন্ধু মেসি যেন পিএসজিতে আসেন।

ওদিকে পিএসজিও হাত গুটিয়ে বসে নেই। দলবদল বিষয়ে নির্ভরযোগ্য ফরাসি সাংবাদিক মুহামেদ বুহাফসি জানিয়েছেন, নিজের পরবর্তী ক্লাব হিসেবে পিএসজিকে বেছে নিয়েছেন মেসি। পিএসজির সঙ্গে মেসির চুক্তিটা কেমন হবে, সেটারও একটা ধারণা দিয়েছেন এই সাংবাদিক। আপাতত দুই বছরের চুক্তি, আরও এক বছর বাড়ানোর সুযোগ থাকবে চুক্তিতে। পিএসজি চাইছে চলতি সপ্তাহের মধ্যেই মেসির গায়ে নিজেদের জার্সি পরাতে।

মেসির বাবা ও মুখপাত্র হোর্হে মেসির সঙ্গে এর মধ্যেই আলোচনা করে ফেলেছে পিএসজি। আগামী বছর কাতারে বিশ্বকাপ, গুরুত্বপূর্ণ ওই ইভেন্টের আগে মেসির মাপের একজন ফুটবলার কাতারি মালিকানাধীন ক্লাবে এলে কাতারের আকর্ষণ যে আরও কয়েক গুণ বেড়ে যাবে, সেটা বেশ ভালোমতোই জানে ক্লাবটা।

তবে মেসির সঙ্গে সম্ভাব্য চুক্তির দৌড়ে পিএসজি যতই এগিয়ে থাকুক, বেশ ভালোই কাঠখড় পোড়াতে হচ্ছে দলটাকে। ফ্রান্সে আয়কর আইনের সঙ্গে খাপ খাওয়ানোর জন্য আকাশছোঁয়া বেতন দিতে হচ্ছে আর্জেন্টাইন অধিনায়ককে। কর-টর কেটে নেওয়ার পর পিএসজি মেসিকে বছরে নেট চার কোটি ইউরো বেতন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অর্থাৎ কর বাবদও একই পরিমাণ অর্থ দিতে হবে তাঁদের, সব মিলিয়ে বাৎসরিক আট কোটি ইউরোর ধাক্কা। ফিন্যান্সিয়াল ফেয়ার প্লের বেড়াজাল এড়িয়ে এই বেতনে মেসিকে দলে রাখার জন্য আদর্শ উপায় খুঁজে বের করেছে পিএসজি।

মেসিকে পেতে পিএসজির আগ্রহ অনেক দিনের। কাতারি মালিকানাধীন হওয়ার পর থেকেই চেষ্টা করে গেছে ক্লাবটা, কিন্তু মেসি কখনো বার্সেলোনা ছাড়তে চাননি বলে দৌড়ে এগোতে পারেনি পিএসজি। গত মৌসুমে জোসেপ মারিয়া বার্তোমেউর বোর্ডের ওপর বিরক্ত হয়ে মেসি যখন ক্লাব ছাড়ার অনুমতি চেয়ে বার্সায় বুরোফ্যাক্স পাঠান, তখন পিএসজি নড়েচড়ে বসেছিল। কিন্তু সে যাত্রায় আইনের মারপ্যাঁচে বার্সা ছাড়া হয়নি মেসির।

এরপর জল অনেক গড়িয়েছে। বার্তোমেউকে উৎখাত করেছেন বার্সার নিবন্ধিত সদস্যরা, সভাপতি পদে নির্বাচিত হয়ে এসেছেন হোয়ান লাপোর্তা—যাঁর সঙ্গে মেসির বরাবরই সুসম্পর্ক ছিল বলে সব সময় জানিয়েছে স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম। লাপোর্তার নির্বাচনি ইশতেহারের সবচেয়ে বড় প্রতিশ্রুতিই ছিল মেসিকে বার্সায় রাখা!

৩৪ বছর বয়সী এই আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডকে রাখার জন্য মেসির একমাত্র শর্ত মানার চেষ্টা করেছেন লাপোর্তা, দলকে লিগ ও চ্যাম্পিয়নস লিগে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার মতো করে গড়ে তুলতে চেষ্টা করেছেন। ক্লাবের আর্থিক জটিলতার মধ্যেই এরই মধ্যে মেম্ফিস, সের্হিও আগুয়েরো, এরিক গার্সিয়া, এমারসন রয়ালকে দলে এনেছেন, এর মধ্যে প্রথম তিনজনের আগের ক্লাবের সঙ্গে চুক্তি শেষ হয়ে যাওয়ায় তাঁদের নিতে বার্সার দলবদলে কোনো খরচ হয়নি।

কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেই আর্থিক অবস্থার জটিলতাই মেসিকে বার্সার হতে দিল না। গত ৩০ জুন মেসির সঙ্গে বার্সার আগের চুক্তি শেষ হয়ে যায়, সে চুক্তি আর নবায়ন করা গেল না। বার্তোমেউর বোর্ডের সৃষ্ট জটিল পরিস্থিতির কারণে বার্সার বেতনের বিল এত বেশি ছিল যে, মেসিকে পুনর্নিবন্ধন করাতে ২০ কোটি ইউরো বেতনের বোঝা কমাতে হতো। সে লক্ষ্যে মেসি বেতন অর্ধেক কমিয়ে বার্সার সঙ্গে পাঁচ বছরের চুক্তি করতে রাজি হয়েছিলেন।

সেটাও এমনভাবে যে অর্ধেক বেতনে মেসি খেলবেন বার্সায় দুই বছর, কিন্তু দুই বছরের বেতনটাই বার্সা দিত পাঁচ মৌসুমে ভাগ করে। কাল লাপোর্তা সংবাদ সম্মেলনে তা-ই জানিয়েছেন। কিন্তু দুই পক্ষের এত চাওয়ার পরও এই অর্ধেক বেতনের, দুই বছরের বেতনকে পাঁচ বছরে ভাগ করে দেওয়ার চুক্তিও নিবন্ধন করানো গেল না! লাপোর্তা জানালেন, মেসির বেতনের বাইরেই বার্সার বেতনের বিল এই মুহূর্তে তাদের আয়ের ৯৫ ভাগ। বার্তোমেউর বোর্ডের অধীনে যেটা ছিল ১১০ ভাগ। লাপোর্তা ক্লাবের সভাপতি হওয়ার পর খেলোয়াড় বিক্রি করে, পিকে-গ্রিজমানদের বেতন কমাতে রাজি করে বেতনের বিল কিছুটা কমিয়েছেন বলে দাবি করেছেন। কিন্তু তা-ও মেসিকে নিবন্ধন করাতে যথেষ্ট হলো না!

সুযোগটা নিচ্ছে পিএসজি। আর্জেন্টিনার সংবাদমাধ্যম টিএনটি স্পোর্ত জানিয়েছে, আগামী শুক্রবার বা শনিবার পিএসজির কর্তাব্যক্তিদের সঙ্গে সরাসরি আলোচনা করার জন্য নিজস্ব উড়োজাহাজে করে ফ্রান্সের নিসে যাবেন মেসি। গুঞ্জন উঠেছে, মেসি পিএসজিতে এসেছেন, এই ঘোষণাটা রাজকীয়ভাবে দেওয়ার জন্য ১০ আগস্টের জন্য প্যারিসের বিখ্যাত আইফেল টাওয়ার ভাড়া নিয়ে রেখেছে পিএসজি।

অপেক্ষা এখন ১০ আগস্টের!

আরো পড়ুন ...

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০