Pallibarta.com | থানার ভিতরে গ্রাম পুলিশকে পিটিয়ে বেত ভাঙ্গার অভিযোগ- প্রত্যাহার এসআই - Pallibarta.com

সোমবার, ১৬ মে ২০২২

থানার ভিতরে গ্রাম পুলিশকে পিটিয়ে বেত ভাঙ্গার অভিযোগ- প্রত্যাহার এসআই

থানার ভিতরে গ্রাম পুলিশকে পিটিয়ে বেত ভাঙ্গার অভিযোগ- প্রত্যাহার এসআই-pallibarta পল্লিবার্তা

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে থানার ভিতরে আবু তাহের (৩২) নামে এক গ্রাম পুলিশকে পিটিয়ে বেত ভাঙ্গার অভিযোগ উঠেছে এসআই’র বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় অভিযুক্ত এসআই হোসাইন মোহাম্মদ আরাফাতকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। সোমবার (২৫ এপ্রিল) রাতে এসআই হোসাইন মোহাম্মদ আরাফাতকে প্রত্যাহার করে জেলা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়। গ্রাম পুলিশ আবু তাহের জাটিয়া ইউনিয়নের পানামা গ্রামের মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে। পারিবারিক মামলায় প্রায় দেড় বছর আগে আবু তাহেরকে গ্রাম পুলিশের চাকরী থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়। অভিযুক্ত এসআই হোসাইন মোহাম্মদ আরাফাত ঈশ্বরগঞ্জ থানায় কর্মরত আছেন।

মঙ্গলবার (২৬ এপ্রিল) সকালে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম) মোহাম্মদ রায়হানুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, হাজিরা দিতে আসা আবু তাহের নামে এক গ্রাম পুলিশকে পেটানোর ঘটনায় এসআই হোসাইন মোহাম্মদ আরাফাতকে প্রতাহার করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে। এর আগে সোমবার (২৫ এপ্রিল) দুপুরে ঈশ্বরগঞ্জ থানায় হাজিরা দিতে গেলে গ্রাম পুলিশকে পেটায় এসআই হোসাইন মোহাম্মদ আরাফাত। এই ঘটনায় ওই দিন বিকালে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন আবু তাহের। এ বিষয়ে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছা. হাফিজা গণমাধ্যমকে বলেন, ঈশ্বরগঞ্জ থানার এসআই’র বিরুদ্ধে আবু তাহের নামে এক গ্রাম পুলিশ তাকে পেটানোর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানানো হবে।

এ বিষয়ে গ্রাম পুলিশ আবু তাহের গণমাধ্যমকে বলেন, প্রতি সপ্তাহের মত থানায় হাজিরা দিতে আসি। সবাই এক সাথে দাড়িয়ে থাকার সময় এসআই হোসাইন মোহাম্মদ আরাফাত জিজ্ঞাসা করেন, আবু তাহের নামে কেউ আছেন কিনা। এসময় আমি আছি বলতেই তিনি আমার শার্টের কলারে ধরে একটি রুমে নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে একটি বেত নিয়ে আমাকে বেধরক মারধর করেন। বেত ভেঙ্গে গেলে আরও একটি বেত খুঁজতে থাকেন। এসময় এসআই রেজাউল এসে ফিরিয়ে আমাকে মিটিংয়ে যেতে বলেন। আমাকে কি অন্যায়ে মারধর করা জানতে চাইলে এসআই হোসাইন মোহাম্মদ আরাফাত ফোন করলে রিসিভ করেন না, খবর দিলেও আসিস না এমন কথা বলতে থাকেন।

কেন আপনাকে মারধর করেছে জানতে চাইলে গ্রাম পুলিশ আবু তাহের আরও বলেন, সম্প্রতি ঈশ্বরগঞ্জ থানায় একটি অপহরণ মামলা হয়। ওই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ছিলেন এসআই হোসাইন মোহাম্মদ আরাফাত। আমি তাকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম, স্যার মামলাটির কি অবস্থা জানতে চাইছিলাম। এই ছাড়া ওনার সাথে আমার অন্য কোন কথা হয়নি। এ বিষয়ে জানতে এসআই হোসাইন মোহাম্মদ আরাফাতের নাম্বারে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি রিসিভ করেননি। ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল কাদির মিয়া গণমাধ্যমকে বলেন, ঘটনার সময় আমি থানায় ছিলাম না। পরে জানতে পারছি, গ্রাম পুলিশকে পেটানোর জন্য এসআই হোসাইন মোহাম্মদ আরাফাতের নামে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। তবে, রাতেই তাকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।-

আরো পড়ুন ...

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১